দৈনিক বেদবাণী


এই সমগ্র সংসার নিরোগ এবং শুভচিন্তা যুক্ত হোক । যজুর্বেদ ১৬.৪                    সূর্য-এর আলোয় স্বয়ং আলোহীন চাঁদ আলোকিত হয় । ঋগ্বেদ ৫.৪০.৫                    প্রশংসনীয় সংস্কৃতি, জ্ঞান-বিজ্ঞান ও মাতৃভূমি— এই ত্রয়ী সুখ-সমৃদ্ধি প্রদান করে। ঋগ্বেদ ১.১৩.৯                    উত্তম জীবন লাভের জন্য আমাদের জ্ঞানীদের সাহচর্যে চলা উচিৎ। ঋগ্বেদ ১.১২.১৬                    যে ব্যক্তি সম্পদ বা সুখ বা জ্ঞান নিঃস্বার্থভাবে দান করে, সে-ই প্রকৃত মিত্র। ঋগ্বেদ ২.৩০.৭                    মানুষ কর্ম দ্বারাই জগতে মহত্ত্ব ও প্রসিদ্ধি লাভ করে। ঋগ্বেদ ৩.৩৬.১                    হে পতি! তোমার স্ত্রীই গৃহ, স্ত্রীই সন্তানের আশ্রয়। ঋগ্বেদ ৩.৫৩.৪                    পরমাত্মার নিয়ম বিনষ্ট হয় না; তা অটুট, অচল ও অপরিবর্তনীয়। ঋগ্বেদ ৩.৫৪.১৮                    এই ধর্মের মার্গই সনাতন, এই পথে চলেই মানবগণ উন্নতি লাভ করে। ঋগ্বেদ ৪.১৮.১                    পরমাত্মার নিকট কোনো মানুষই বড় বা ছোট নয়। সকল মানুষই সমান এবং পরস্পরের ভ্রাতৃস্বরূপ। ঋগ্বেদ ৫.৬০.৫                    যে ব্যক্তি অকারণে অন্যের নিন্দা করে, সে নিজেও নিন্দার পাত্র হয়। ঋগ্বেদ ৫.২.৬                    নিশ্চিতরূপে এই চতুর্বেদ কল্যাণপ্রদায়িনী এবং মানবকে জ্ঞান প্রদান করে ধারণকারিণী। ঋগ্বেদ ৫.৪৭.৪                    বীর মানবের জন্য পর্বতও সুগম হয়ে যায়। ঋগ্বেদ ৬.২৪.৮                    আমরা অন্যের সঞ্চিত পাপের কর্মফল ভোগ করি না। ঋগ্বেদ ৬.৫১.৭                    হে মিত্রগণ! ওঠো— উদ্যমী হও, সাবধান হও এবং এই সংসাররূপী নদীকে অতিক্রম করো। ঋগ্বেদ ১০.৫৩.৮







বাবরি কাণ্ডে 'যুক্ত' বলবীর সিং - এর ইসলাম গ্রহণের মিথ্যাচার খণ্ডন

সত্যান্বেষী
1


⛔ দাবিঃ বাবরী মসজিদে প্রথম আঘাতকারী বলবীর সিং অনুতপ্ত হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন। 


⚠️অনুসন্ধানঃ ২০১৭ সালের ৬ই ডিসেম্বর DNA প্রথম প্রকাশ করে ৩জন এমন ইসলাম গ্রহণ করেছে৷ একই সাংবাদিক ডা. কফিল খাঁ নামের চিকিৎসকের গাফিলতিতে ৩৩ শিশুর মৃত্যুকে ঢাকার চেষ্টা করেছিলো, পরে ধরা পড়ে।

1. https://www.opindia.com/2017/11/after-opindia-report-dna-updates-misleading-story-on-dr-kafeel-khan/


2. https://www.opindia.com/2017/08/gorakhpur-hero-dr-kafeel-khan-sacked-soon-after-social-media-dug-up-his-past/ 



বজরং দল নেতা শিবপ্রসাদ নামের ব্যক্তিদের উল্লেখ কোন বিশ্বস্ত সূত্রে না পাওয়া যায় না ছবি আছে। যা পাওয়া যায় তা ১৮ বছর পরে লেখা কিছু ইসলামী সাইটের উল্লেখ তাতেও প্রমাণ নেই৷ ২০০৬ সালের কিছু সাইটে পাওয়া গেলেও তাতেও একই বিষয় প্রমাণহীন। ১ম ভিডিয়ো একটি উর্দু চ্যানেলকে দেওয়া। সবগুলো রিপোর্ট যা এখন অব্দি ছড়ানো হয় সেগুলো এগুলোর উপর ভিত্তি করেই যার একমাত্র ব্যক্তিগত দাবি করা বাদে বিন্দুমাত্র কোন প্রমাণ নেই। এমনকি যেসব করসেবকদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিলো তাদের ১ম আসামী রামজী গুপ্তাও এই বলবীর সিং নামে কেউ ছিল তা নস্যাৎ করেছেন। সত্যিই তিনি ইসলাম গ্রহণ করলে প্রচার কেন হয়নি ? বাকিদের অস্তিত্ব বা ছবি বা রেকর্ডই বা নেই কেন ? বক্তা ও সাংবাদিক উভয়ই এখানে বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণহীন। 


✅ সিদ্ধান্তঃ মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার


https://www.opindia.com/2017/12/factcheck-how-reliable-are-reports-about-kar-sevaks-converting-to-islam-to-atone-for-babri-demolition/


© বাংলাদেশ অগ্নিবীর

Post a Comment

1Comments
  1. লজিকের মা বাপ সব এক হয়ে গেল না ভাই? কোথায় রইছে কফিল খান আর কোথায় কি। কফিল খানের কাহিনী শেষ হইছে তাও কয়েক বছর। কফিল খানকে আদালত দোষমুক্ত ঘোষণা করছে, গভমেন্ট যে নিজের দোষ ঢাকার জন্য ওরে বলির পাঠা বানাইছে আদালতের রায়ের এই ব্যাপারটা লুকোলেন কেন?

    আর opindia ☺️☺️? এটা আপনাদের নিউজ সোর্স?
    Here is the things that have written on wikipedia about opindia. Just very few 1st lines -
    "OpIndia is an Indian right-wing news website known for frequently publishing misinformation. Founded in December 2014, the website has published fake news and Islamophobic commentary on many occasions."

    Please now don't say wikipedia is এ anti india, anti hindu platform.

    অগ্নিবীর opindia মতোই এন্টি মুসলিম এবং বাংলাদেশ বিরোধী প্রোপাগান্ডা ছড়ায়। এটা আমাদের নজরে আছে।

    ReplyDelete
Post a Comment