বেদ ও তড়িত্‍শক্তি - অগ্নিবীর

 


অথর্ববেদ বিভিন্ন প্রায়োগিক বিদ্যার জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ তা আমরা সবাই জানি । দেখে নেয়া যাক তড়িত্ শক্তি সম্পর্কে পবিত্র এই জ্ঞানের উত্স কি বলেছে-

"নব য়ো নবতি পুরো বিভেদ
বাহভোত জাসা অহি ছ
বৃত্রাহাভদিত"
অথর্ববেদ ২০.৭.২


অনুবাদ- বিদ্যুত্ যা এর বাহুর ( ইলেকট্রন এবং প্রোটন ) সাহায্যে পদার্থকে ৯৯টি শাখায় বিভক্ত করে যেসকল সূর্যালোকে অবস্থান করে ।


এখানে আধুনিক বিজ্ঞানীদের কর্তৃক বর্ণিত ৯৯টি কনা যা সকল পরমানুর তড়িত্ ভাঙ্গন এর ফলে সৃষ্ট তা বলা হয়েছে । উল্লেখ্য যে এদের প্রত্যেকটিকে সূর্যকর্তৃক বিকীর্ন অতিবেগুনী রশ্মি তে পাওয়া যায় ।

"সন ইন্দ্রঃ শিবাঃ য়ক্ষবাদ গোমদববম উরধারেব দোহাতে"
অথর্ববেদ ২০.০৭.৩


অনুবাদ-এই অসাধারন শক্তি আমাদের বন্ধু হতে পারে যার মাধ্যমে আমরা আমাদের বাড়িঘর আলোময় করে তুলতে পারি , পারি শস্যক্ষেত্রে কাজে লাগাতে ।


"ইন্দ্র নতুবিদন্ধ সুতং সোমাং হর্য পুরুষ্তুতে পিবা বৃহসত্ ততৃপিম"
অথর্ববেদ ২০.৭.৪


অনুবাদ-জ্ঞানীদের পরামর্শ অনুসারে আমরা একে কাজে লাগাতে পরি দ্রব্যাদি সংরক্ষনে(রেফ্রি জারেটর) তাদের মাধ্যমে যারা এতে দক্ষ । এটিকে নিরাপদে ব্যবহার করি যাতে এটি বিপদ সৃষ্টি না করে ।


"বজ্রিনেম সন্দিনাম সোম্যমমদ ইন্দ্রম রথে বহতা হর্যতাহরি পুরুনাস্ময় সবনানি হর্যাতা ইন্দ্রারা সোমা হারায়ো দধিবীরে"
অথর্ববেদ ২০.৩.১


অনুবাদ-সেই দ্রুত গতিশীল দুই বস্তু‌ ( ইলেকট্রন ও প্রোটন ) যার আকর্ষন ও বিকর্ষন ক্ষমতা আছে তা বিদ্যুত্ চালনা করে । এটি বজ্রের ন্যয় শক্তিশালী ,আমাদে র উপকারী । এটি উত্পন্নের জন্য রয়েছে তরল উত্স ( বিদ্যুত্ উত্পন্নের তরল জ্বালানী‌ ) ।



"আড়ং কামোয়ো হর্যো দধীনবীরে স্থিরানো হিন্বানোহায়াযো হরি তুরা অর্বধ্বিয়র হরিবিজোড়সামিয়াতে স অস্য কামাম হরিবন্তমানসে"
অথর্ববেদ ২০.৩.২


অনুবাদ-সেই দুই গতিশীল শক্তি দুই দিকে গতিশীল ( ইলেকট্রন ও প্রোটন এর বিপরীত দিকে গতি ) যার মাধ্যমে উত্পন্ন শক্তিকে আমরা বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতে পারি ।


এছাড়া বিদ্যুত্ এর আরো বিভিন্ন ব্যবহার রয়েছে -


তৈত্তিরীয় উপনিষদ ৭.৩.২ এ জলবিদ্যুত্
তৈত্তিরীয় উপনিষদ ১.৩.২ এ তাপবিদ্যুত্
ঋগ্বেদ ১.৩২.১৩ এ মেঘে মেঘে ঘর্ষনের ফলে বিদ্যুত্ উত্পাদনের উল্লেখ ।
ঋগ্বেদ ১.৬.৫ এ বায়ুর মাধ্যমেবিদ্যুত্ শক্তি উত্পাদন ।
ঋগ্বেদ ১.১৬৮.৮ এ বলা হয়েছে যখন অঝোর ধারায় বৃষ্টি পড়ে তখন নদীতে প্রবল স্রোতের সৃষ্টি হয় আর সেই গতিময় জল থেকে বিদ্যুত্ উত্পাদন সম্ভব ।

ঋগ্বেদ ৫.৮৭.১০ এ শব্দ বড় করতে বিদ্যুতের ব্যবহার ( মাইক্রো ফোন‌ ) বিদ্যুত্ এর ব্যবহার আরো পাবেন । ঋগ্বেদ ৫.৫৪.১১ , ৫.৫২.৬ , ৩.১.১৪ , ৫.৮৬.১৩ ।

- নমস্কার l

বাংলাদেশ অগ্নিবীর
সত্য প্রকাশে নির্ভীক সৈনিক l

 

No comments:

Post a Comment

Pages