গুরু কে হবেন ? - অগ্নিবীর


✅ গুরু কে হবেন ❓ গুরুর ১১টি বৈশিষ্ট্য বেদের আলোকে জানুন  

🌼 পবিত্র সামবেদে বলা হয়েছে - 


✔️ঋষি: - মনুঃ সাম্বরণঃ
✔️দেবতা - পবমানঃ সোমঃ
✔️ছন্দঃ - অনুষ্টুপ্
✔️স্বরঃ - গান্ধারঃ

তে পূতাসো বিপশ্চিতঃ সোমাসো দধ্যাশিরঃ ।
সূরাসো ন দর্শতাসো জিগত্নবো ধ্রুবা ঘৃতে ॥
[ সামবেদ ১১০২ ] 

পদার্থঃ (পূতাসঃ) পবিত্র, (বিপশ্চিতঃ) বিদ্বান্, (দধ্যাশিরঃ) জ্ঞানের ধারণকর্ত্তা ও পরিপক্ব, পরমাত্মাতে আশ্রিত [দধতি অন্যান্ ইতি দধয়ঃ। ‘আদৃগমহনজনঃ কিকিনৌ লিট্ চ। অষ্টা০ ৩।২।১৭১’ ইত্যনেন ডুধাঞ্ ধাতোঃ কিন্ প্রত্যয়ঃ। আশ্রীণন্তি স্বাত্মানং যে তে আশিরঃ। আঙ্পূর্বঃ শ্রীঞ্ পাকে, ক্বিপি ধাতোঃ শির আদেশশ্ছান্দসঃ।] (সূরাসঃ ন) সূর্যের ন্যায় (দর্শতাসঃ) দর্শনীয় অর্থাৎ কান্তিমান তথা অধ্যাত্ম ঋত=সত্যের মার্গ দৃষ্টি প্রদানকারী, (জিগত্নবঃ) গতিমান্ ও কর্মণ্য এবং (ঘৃতে) বিবেকবান হয়ে (ধ্রুবাঃ) যারা স্থির থাকেন, (তে) তারাই (সোমাসঃ) বিদ্যা, ধর্ম, আদির প্রেরণা প্রদানকারী বিনয়স্বভাবযুক্ত গুরু ও রাজমানব হবেন ॥

সরলার্থঃ যারা পবিত্র, বিদ্বান, জ্ঞানের ধারণকর্ত্তা ও পরিপক্ব, পরমাত্মাতে আশ্রিত, সূর্যের ন্যায় দর্শনীয় অর্থাৎ কান্তিমান অধ্যাত্ম সত্যের মার্গ তথা দৃষ্টি প্রদানকারী, গতিমান্ ও কর্মণ্য, ধীর এবং বিবেকবান তারাই বিনয় , বিদ্যা, ধর্ম, আদির প্রেরণা দানকারী বিনয়স্বভাবযুক্ত গুরু হবেন ॥

ভাবার্থঃ যিনি পবিত্র আচরণকারী, বিবিধ বিদ্যার অধ্যয়নকারী, অন্যের সহায়তাকারী, পরিপক্বমতি, সূর্যের ন্যায় প্রকাশক, কর্মঠ, বিবেকবান, যিনি বার-বার বাধা-বিপত্তির দ্বারা আহত হয়েও কোন কার্য পরিত্যাগ করেন না তিনিই গুরু, তিনিই রাজপুরুষ। এবং তারাই সফলতা অর্জন করেন ॥

[ ড. রামনাথ বেদালঙ্কার ও পণ্ডিত হরিশরণ সিদ্ধান্তালংকার ] 

অর্থাৎ গুরুর বৈশিষ্ট্য হলো - 

১। বিনয়ী 
২। পবিত্র
৩। কর্মে গতিশীল অর্থাৎ অলস হবেন না , কর্মঠ 
৪। বিদ্বান 
৫। জ্ঞানের ধারক
৬। বিচারবুদ্ধিতে পরিপক্ব 
৭। কান্তিমান , তার শারীরিক ভাষাতেই তার বিদ্যার প্রকাশ হবে 
৮। সত্যের পথপ্রদর্শক 
৯। সর্বদা পরমাত্মার শরণাগত
১০। বিবেকবান 
১১। সত্যে অটল 

🖋️ 

বাংলাদেশ অগ্নিবীর

No comments:

Post a Comment

Pages