ভজন, কীর্তন ও স্তোত্র বাদ্যযন্ত্র সহকারে গান হিসেবে গীত করার বৈদিক নির্দেশনা আছে কি ❓ - অগ্নিবীর

ভজন, কীর্তন ও স্তোত্র বাদ্যযন্ত্র সহকারে গান হিসেবে গীত করার বৈদিক নির্দেশনা আছে কি ❓

Share This

 


 

প্রশ্নঃ ভজন, কীর্তন ও স্তোত্র বাদ্যযন্ত্র সহকারে গান হিসেবে গীত করার বৈদিক নির্দেশনা আছে কি ❓

উত্তরঃ হ্যাঁ রয়েছে । যজুর্বেদে [ ৩০।২০ ] গানের জন্য বীণাবাদকের উল্লেখ পাওয়া যায় । ঐতরেয় আরণ্যকে [ ৩।২।৫ ] শিরস্, উদর , অম্ভণ, তন্ত্র / তন্তু বা তন্তি, সাধন কোণ, বাদন ইত্যাদি অংশের উল্লেখ আমরা পাই । ঋগ্বেদ [১।৮৫।১০] ও অথর্ববেদ [১০।৩২।৪] এ বীণার একটি বিশেষ প্রকার 'বাণ' এর উল্লেখ পাওয়া যায়৷ কাঠক সংহিতায় [৩৪।৫] একে শততন্তু বা শততন্ত্রীও বলা হয়েছে । অর্থাৎ এর তার সংখ্যা ছিলো ১০০ । ঢোল আদিকে দুন্দুভি বলা হয় । বেদে ঋ০ ১।২৮।৫, অথর্ব০ ৬।১২৬।১-৩ এ দুন্দুভির উল্লেখ পাওয়া যায় । অথর্ববেদ অনুযায়ী [৬।১২৬।৩ ] যুদ্ধক্ষেত্রে দুন্দুভি বাজানো হয় । সৈন্যদের উৎসাহ বর্ধনের জন্যই এরূপ করা হতো । আরো যেসব বাদ্যযন্ত্রের উল্লেখ আমরা বেদে পাই তা নিম্নরূপ - 


  • তূণব [ বাঁশী ] = [কা০ সং০ ২৩।৪] 
  • যে বাজাতো তাকে তূণবধ্ম [যজু০ ৩০।১৯ ] বলা হয়
  • শঙ্খ = যে বাজায় তাকে বলা হয় শঙ্খধ্ম । [যজু০ ৩০।১৯ ]
  • আড়ম্বর [ বড় ঢোল ] =[ যজু০ ৩০।১৯ ]
  • বাণীচী = বাঁশির মত । যুদ্ধে বাজানো হয় । [ঋ০ ৫।৭৫।৪ ]
  • তলব বা তবলা = যে বাজায় তাকে পাণিঘ্ন বলে । [যজু০ ৩০।২০ ]
  • সূর্মি = হারমোনিয়ামের মত ।[ কা০ সং০ ২১।৯, ঋ০ ৮।৬৯।১২ ]
  • কর্করী = বীণা বা বীন । যে বাজায় তাকে কর্করিক বলে [ অথর্ব০ ২০।১৩২।৩ ] 
  • গোধা = বীণা তুল্য [ ঋ০ ৮।৬৯।৯, অথর্ব০ ২০।৯২।৬ ] 
  • গর্গর = তানপুরা [ ঋ০ ৮।৬৯।৯ ] 
  • পিঙ্গা = ঢোলের মত । [ ঐ ] 
  • বেণু = বাঁশী বা মুরলী । [ ঋ০ ৮।৫৫।৩ ] 
  • মঞ্জিরা, করতাল ( cymbal) [ অথর্ব০ ৪।৩৭।৫, ঋ০ ১০।১৪৬।২, তা০ ব্রা০ ২।৫।৪ ] 


শ্রীমদ্ভগবদ্গীতায় [১।১৩] নিম্নলিখিত বাদ্যযন্ত্রের উল্লেখ রয়েছে -


ততঃ শঙ্খাশ্চ ভের্যশ্চ পণবানকগোমুখাঃ ।

সহসৈবাভ্যহন্যস্ত স শব্দস্তুমুলোহভবৎ।।

অনুবাদঃ তারপর শঙ্খ, ভেরী, পণব,আনক, ঢাক ও গোমুখ শিঙাসমূহ হঠাৎ একত্রে ধ্বনিত হয়ে এক তুমুল শব্দের সৃষ্টি হল। 

অর্থাৎ - 

 শঙ্খ, ভেরী [ Bugles] , পণব [ Trumpets ], আনক [ Kettledrums ], গোমুখ [ বিশেষ প্রকার শিঙ্গা ] ।  


সামবেসে উপাসকের স্তোত্রগানের পদ্ধতির বর্ণনা হয়েছে নিম্নরূপে - 


॥ ঋষিঃ উচথ্য আঙ্গিরসঃ ॥ দেবতাঃ পবমানঃ সোমঃ ॥ ছন্দঃ গায়ত্রী ॥ স্বরঃ ষড্জ ॥

উত্তে শুষ্মাস ঈরতে সিন্ধোরূর্মেরিব স্বনঃ । 

বাণস্য চোদয়া পবিম্ ॥

সামবেদ ১২০৫ 

পদার্থঃ হে ভক্তিসাধক উপাসক ! (তে) তোমার (শুষ্মাসঃ) বলবান্ স্তোত্রসমূহ (উদীরতে) উত্থিত হচ্ছে । তার (সিন্ধোঃ ঊর্মেঃ ইব) সমুদ্র তরঙ্গের ন্যায় (স্বনঃ) গীত ধ্বনি । তুমি (বাণস্য) বীণাদণ্ডের (পবিম্) তন্ত্রীকে (চোদয়) প্রেরিত করো, অর্থাৎ বীণা-বাদনের মাধ্যমে প্রভু-ভক্তির স্তোত্রকে তরঙ্গিত করো । 

সরলার্থঃ হে ভক্তিসাধক উপাসক ! তোমার বলবান্ স্তোত্রসমূহ উত্থিত হচ্ছে । তাঁর সমুদ্র তরঙ্গের ন্যায় গীত ধ্বনি । তুমি বীণাদণ্ডের তন্ত্রীকে প্রেরিত করো, অর্থাৎ বীণা-বাদনের মাধ্যমে প্রভু-ভক্তির স্তোত্রকে তরঙ্গিত করো ।

শাখাভেদে মন্ত্রটির অবস্থান -

(কৌথুম) উত্তরার্চিকঃ » প্রপাঠক » 5; অর্ধ-প্রপাঠক » 1; দশতিঃ » ; সূক্ত » 5; মন্ত্র » 1 (রাণানীয়) উত্তরার্চিকঃ » অধ্যায় » 9; খণ্ড » 4; সূক্ত » 1; মন্ত্র » 1


অতএব বাদ্যযন্ত্র দ্বারা পরমাত্মার স্তুতি কীর্তন বেদ ও বৈদিক শাস্ত্র দ্বারা অনুমোদিত ।

 

বাংলাদেশ অগ্নিবীর 

সত্য প্রকাশে নির্ভীক সৈনিক 


No comments:

Post a Comment

Pages